শনিবার, ০৪ এপ্রিল ২০২০, ০৪:১৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
অসহায়, দরিদ্র পরিবারের মাঝে’বিশ্বাস স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা’র খাদ্য সামগ্রী বিতরণ বারঘরিয়া ও মহারাজপুরে জীবাণুনাশক ওষুধ স্প্রে তসিকুল চেয়ারম্যানের চাঁপাইনবাবগঞ্জে মাস্ক না ব্যবহারের অপরাধে সেনাবাহিনীর জরিমানা চাঁপাইনবাবগঞ্জে রক্তদান সংস্থা স্পর্শ’র উদ্যোগে খাবার বিতরণ চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকার বিভিন্ন ওয়ার্ডে পরিস্কার পরিছন্ন অভিযান শিবগঞ্জে ৮৬৬ হতদরিদ্রদের চালের কার্ডে অনিয়মের অভিযোগ শিবগঞ্জে বাড়িতে অগ্নিকান্ডে গরু ও ছাগল পুড়ে ভষ্মিভূত গোমস্তাপুরে পুলিশ-প্রশাসনের বিশেষ অভিযান : জরিমানা করোনা : কর্মহীন মানুষদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করোনা : চাঁপাইনবাবগঞ্জের পুরাতন বাজারে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে জরিমানা

প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে চাঁপাইনবাবগঞ্জসহ ১৪ জেলার ফল স্থগিত

কানসাট নিউজ ডেস্ক:
  • আপডেট টাইম সোমবার, ২০ জানুয়ারী, ২০২০
  • ৯৫ বার পঠিত

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলাসহ ১৪ জেলার ঘোষিত চূড়ান্ত ফলাফল ছয় মাসের জন্য স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট।

৪৬ জনের করা রিট আবেদনের শুনানির জন্য সোমবার (২০ জানুয়ারি) বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি মো. মাহমুদ হাসান তালুকদারের হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেন।

জেলাগুলো হলো- চাঁপাইনবাবগঞ্জ, পটুয়াখালী, মাদারীপুর, সিরাজগঞ্জ, নওগাঁ, হবিগঞ্জ, ময়মনসিংহ, নেত্রকোনা, নোয়াখালী, যশোর, সাতক্ষীরা, টাঙ্গাইল, বরগুনা ও ঠাকুরগাঁও।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মো. আসাদ উদ্দিন।

তিনি বলেন, প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা ২০১৩ এর ৭ ধারায় বলা হয়েছে, এই বিধিমালার অধীন সরাসরি নিয়োগযোগ্য পদগুলোর ষাট শতাংশ মহিলা প্রার্থীদের দ্বারা, বিশ শতাংশ পৌষ্য প্রার্থীদের দ্বারা এবং বাকি বিশ শতাংশ পুরুষ প্রার্থীদের দ্বারা পূরণ করা হইবে।

কিন্তু ২৪ ডিসেম্বরের ঘোষিত ফলাফলের ক্ষেত্রে সেটা অনুসরণ করা হয়নি। তাই নীলফামারী জেলার পিংকি রানী রায়সহ ২০ জন ও বরগুনা জেলার এক প্রার্থী হাইকোর্টে রিট করেন।

তিনি আরও বলেন, আজ আদালত ১৪ জেলার ফলাফলের ওপর ৬ মাসের স্থগিতাদেশ দিয়ে রুল জারি করেছেন।

গত ১৫ জানুয়ারি নীলফামারী ও বরগুনা জেলার ফলাফলের ওপর স্থগিতাদেশ দিয়েছিলেন একই আদালত।

এর আগে মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) ১৬ নিয়োগ প্রার্থীর করা আরেক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি এম ইনায়েতুর ও রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ একটি রুল জারি করেছিলেন।

ওই রিটের আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো. কামাল হোসেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার।

পরে কামাল হোসেন বলেন, রুলে প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা ২০১৩ লঙ্ঘন করে ২৪ ডিসেম্বর ঘোষিত ফলাফল কেন আইনগত কর্তৃত্ব বর্হিভূত ঘোষণা করা হবে না এবং একইসঙ্গে ঘোষিত ফলাফল বাতিল করে প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা ২০১৩ অনুসরণ করে নতুন ফলাফল কেন ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট।

১০ দিনের মধ্যে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকসহ সংশ্লিষ্টদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

কামাল হোসেন আরও বলেন, এর মধ্যে ওই ফলাফল অনুসারে যদি তারা নিয়োগের উদ্যোগ নেয় তাহলে তা স্থগিতে আমরা ফের আদালতের দ্বারস্থ হবে। আর আদালতের জারি করা রুল বিশেষ বার্তাবাহকের মাধ্যমে পাঠাতে বলা হয়েছে।

গত ২৪ ডিসেম্বর রাতে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় মৌখিক পরীক্ষায় ১৮ হাজার ১৪৭ জন প্রার্থীকে নির্বাচন করে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

 

Copyright © All rights reserved © 2019 Kansatnews24.com
Theme Developed BY Sobuj Ali
error: Content is protected !!