রবিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২১, ০৮:৪১ অপরাহ্ন

শিবগঞ্জ থানার ওসি শামসুল আলমের সেবা প্রদানে ভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম রবিবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৯
  • ৩৬৪ বার পঠিত

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ থানাকে দালালমুক্ত, সাধারণ মানুষের আইনী সেবা নিশ্চিত ও জনসাধারণের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে জনসেবা প্রদানে এক ভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শামসুল আলম শাহ। তিনি গত ২৫ সেপ্টেম্বর শিবগঞ্জ থানায় যোগদানের পর থেকে বিভিন্ন পেশার শ্রেণি মানুষের সাথে মতবিনিময় করেছেন।

এছাড়া তিনি জনসেবা প্রদানের জন্য সাধারণ ডায়েরী (জিডি), অভিযোগ ও এজাহারসহ সাধারণ মানুষের দায়ের করা আবেদন বিনা টাকায় গ্রহণের পাশাপাশি নিজ উদ্যোগে মুঠোফোনে অভিযোগ বা আবেদনকারীগণকে মেসেজ দিয়ে সেবা গৃহীতাকে নিশ্চিত করেন। তিনি মুঠোফোনে মেসেজ দিয়ে আবেদনকারীকে তাঁদের নিশ্চিত করেন কোন পুলিশ কর্মকর্তা দায়িত্ব রয়েছে সেই পুলিশ কর্মকর্তা নাম ও মোবাইল নম্বর প্রদান করেন এবং তাৎক্ষনিক যোগাযোগের ব্যবস্থা করে দেন।

জানা গেছে, এই প্রথম চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে শুধু তিনি নিজ উদ্যোগে এবং নিজ খরচে মুঠোফোনে (এসএমএস)’র তথ্য ও সেবা প্রদান করছেন। যা জেলার এক ভিন্ন সেবা প্রদান।

এব্যাপারে সেবা গৃহীতা মো. মিজানুর জানান, গত ৮ নভেম্বর তারিখ আমি একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করতে গিয়েছিলাম। আমার জিডি গ্রহণের কিছুক্ষণ পরই আমার মোবাইলে একটি মেসেজ আসে। সে মেসেজের শিবগঞ্জ থানার ওসি তাঁর মোবাইল থেকে মেসেজের মাধ্যমে আমার জিডি তদন্তকারী কর্মকর্তার নাম ও মোবাইল নম্বর দেন। এরপর থেকে ওই তদন্তকারী কর্মকর্তা আমার সাথে যোগাযোগ করেন এবং বিভিন্ন সেবামূলক তথ্য দেন। এছাড়া প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করেন।

এব্যাপারে শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শামসুল আলম শাহ জানান, শিবগঞ্জ উপজেলা একটি জনবহুল উপজেলা। এ উপজেলায় প্রায় ৮ লাখ মানুষ বসবাস করেন। তাদের কথা চিন্তা করে এবং তাদেরকে সঠিক ও তাৎক্ষণিক সেবা প্রদান জন্য নিজ উদ্যোগ গ্রহণ করি কিভাবে জনসেবা প্রদান করা যায়। সে সাথে থানাকে দালালমুক্ত করে জনসাধারণে সেবার মান বৃদ্ধির জন্য এই ভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছি। সেই চিন্তার আলোকেই আমি পুলিশ সুপার মহোদয়ের সাথে পরামর্শ্য করি। তিনি বিষয়টি গ্রহণ করে আমাকে বলেন, এটি নিঃসন্দেহ ভালো উদ্যোগ। তুমি এটি করতে পারো।

এরপর থেকে আমি নিজের টাকা খচর করে প্রতি দিন প্রায় ২৫/৩০টি সাধারণ ডায়েরী (জিডি), অভিযোগ ও এজাহারকারীগণকে মেসেজের মাধ্যমে জানিয়ে দিই।

তিনি আরো বলেন, আমি মনে এটি একটি ডিজিটাল সেবা। এছাড়া অনেক সাধারণ মানুষ আমার কাছে সরাসরি আসতে পারেন না। তাই আমি প্রতিটি মতবিনিময় সভায়, মসজিদে মসজিদে প্রচারের মাধ্যমে বলেছি, আমার কাছে আসতে কোনো ব্যক্তির মাধ্যমে আসতে হবে না। আপনার আমার কাছে সরাসরি চলে আসবেন, কোনো ভয় না করেই নির্ভয়ে সেবা নিতে চলে আসবেন। আমার সাধ্যমত ও আইনের মধ্যে সীমাবদ্ধতা রেখে সেবা প্রদান করবো।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

 

Copyright © All rights reserved © 2019 Kansatnews24.com
Theme Developed BY Sobuj Ali
error: Content is protected !!