মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০২:২৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
চাঁপাইনবাবগঞ্জে বসতবাড়ীতে ফল উৎপাদন প্রযুক্তি প্রশিক্ষণ গোমস্তাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপিত মোস্তফা, সম্পাদক জামাল চাঁপাইনবাবগঞ্জে শুদ্ধসুরে জাতীয় সংগীত পরিবেশন প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী চাঁপাইনবাবগঞ্জে মাদক ব্যবসায়ীর ৫ বছর কারাদন্ড চাঁপাইনবাবগঞ্জে পুলিশ ক্লিয়ারেন্সের নামে টাকা নেবার অভিযোগে যুবক গ্রেপ্তার শিবগঞ্জ উপজেলা আ’লীগের সম্মেলনে সভাপতি মুক্তা ও সম্পাদক টুটুল খান চাঁপাইনবাবগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত-২ চাঁপাইনবাবগঞ্জে স্টুডেন্ট কাউন্সিল নির্বাচন জনগণের ভালোবাসা অর্জন ছাড়া ক্ষমতায় টিকে থাকা সম্ভব নয়: এস এম কামাল হোসেন শিবগঞ্জের পাঁকা ইউনিয়নের উপ-নির্বাচনে কে হবেন নৌকার কান্ডারী

বেফাঁস মন্তব্যে নাগরিকত্ব হারাচ্ছেন ফাঁসলেন জাকির নায়েক,

অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট টাইম শনিবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৯
  • ৭০ বার পঠিত

মালয়েশিয়ার স্থায়ী নাগরিকত্ব হারাতে চলেছেন ভারতের বিশিষ্ট ইসলামি চিন্তাবিদ ও তুখোড় বক্তা জাকির নায়েক। সম্প্রতি তার কিছু মন্তব্যকে কেন্দ্র করে মালয়েশিয়ায় তাকে নিয়ে বিতর্ক দানা বাধার প্রেক্ষিতে এমন ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ।

ইতোমধ্যে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে ১১৫টি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এসব অভিযোগের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে স্থানীয় পুলিশ। তার বিরুদ্ধে আনীত এসব অভিযোগ প্রমাণিত হলে জাকির নায়েকের নাগরিকত্ব বাতিল করা হবে বলে জানা গেছে।

জাকির নায়েক স্থায়ী নাগরিকত্ব নিয়ে গত তিন বছর ধরে মালয়েশিয়ায় রয়েছেন। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে মালয়েশিয়ায় তাকে স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতি দেয়া নিয়ে দেশটির মন্ত্রিসভার বৈঠকে তিন মন্ত্রী তাকে বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছেন। এমনকি তার বিরুদ্ধে শান্তি বিনষ্টের অভিযোগও আনা হয়েছে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর সঙ্গে আলাপকালে প্রধানমন্ত্রী মহাথীর মোহাম্মদ জানান, এই মুহূর্তে মালয়েশিয়া সরকার তদন্ত রিপোর্টের অপেক্ষায় আছে। এসব রিপোর্ট হাতে পেলেই জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে সরকার।

কিছুদিন আগেই দেশটির সংখ্যালঘু চীনাদের নিয়ে একটি বিতর্কিত মন্তব্য করেন জাকির নায়েক। ওই বক্তব্যে তিনি মালয়েশিয়ায় বসবাসরত চীনা বংশোদ্ভূত নাগরিকদের আগে দেশে ফেরার আহ্বান জানান। শুধু তাই নয়, তিনি চীনাদের মালয়েশিয়ার পুরনো অতিথি বলেও উল্লেখ করেন। কেলানতানে এক ধর্মীয় আলোচনায় তাকে নিজের দেশে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানানো হলে এর জবাবে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

প্রসঙ্গত, মালয়েশিয়ার জনসংখ্যার ৬০ শতাংশ মুসলিম, বাকি ৪০ শতাংশ মানুষের অধিকাংশই চীনা ও ভারতীয় বংশোদ্ভূত।

ওই অনুষ্ঠানে তিনি আরো বলেন, ভারতের সংখ্যালঘু মুসলিমদের চেয়ে মালয়েশিয়ার সংখ্যালঘু হিন্দুরা শত গুণ বেশি সুবিধা ভোগ করছে। তার এমন মন্তব্যকে ঘিরে সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়। তাকে দেশ থেকে বিতাড়িত করার দাবি তুলে মালয়েশিয়ার তিন মন্ত্রী বলেন, মালয়েশিয়ার মুসলিমদের সঙ্গে অমুসলিমদের দূরত্ব তৈরির উদ্দেশ্যে এমন মন্তব্য করেছেন জাকির নায়েক। তিনি দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করতে চাইছেন বলেও অভিযোগ করেন ওই মন্ত্রীরা।

মালয়েশিয়া সংখ্রালঘু হিন্দুদের সমালোচনা করে জাকির নায়েক বলেন, মালয়েশিয়ার হিন্দুরা মাহাথীর মোহাম্মদের তুলনায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রতি বেশি অনুগত। এই বক্তব্য নিয়ে পুলিশ তাকে জেরা করবে বলে জানা যায়।

এ সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী মহাথির মোহাম্মদের অভিমত হচ্ছে, তার এ ধরনের কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া না হলে দেশে সাম্প্রদায়িক চাপ বাড়বে।

এইসব জাতি বিদ্বেষমূলক মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে জাকির নায়েককে দু’দিন কোন ধর্মীয় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে দেয়া হয়নি।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
Copyright © All rights reserved © 2019 Kansatnews24.com
Theme Developed BY Sobuj Ali
error: Content is protected !!