বৃহস্পতিবার, ০৬ অগাস্ট ২০২০, ০৩:৫৫ অপরাহ্ন

পুঠিয়ায় র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত-১ : আগ্নেয়াস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম বুধবার, ২২ জুলাই, ২০২০
  • ১২ বার পঠিত

র‌্যাব-৫ এর মোল্লাপাড়া ক্যাম্পের একটি অপারেশন দল ২১ জুলাই রাত পৌনে ৪টার দিকে রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার পীরগাছা এলাকায় বিশেষ মাদক উদ্ধার অভিযানকালে গোলাগুলি ঘটনা ঘটে। এসময় র‌্যাবের সাথে বন্ধুকযুদ্ধে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়। গোলাগুলি শেষে ঘটনাস্থল থেকে ৭.৬৫ মিঃ মিঃ ১টি বিদেশী পিস্তল, ১টি ওয়ান শুটারগান, ২ রাউন্ড তাজা গুলি, ১টি ম্যাগজিন, ১টি গুলির খালি খোসা ও ৪৮০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।

নিহত মাদক ব্যবসায়ী পুঠিয়া উপজেলার হলহলিয়া গ্রামের মোঃ আবুল কাশেমের ছেলে মোঃ ইখলাস আলী (২৮)।

মঙ্গলবার রাতে র‌্যাবের পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, মোল্লাপাড়া ক্যাম্পের একটি অপারেশন দল ২১ জুলাই রাত পৌনে ৪টার দিকে রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার পীরগাছা এলাকায় বিশেষ মাদক উদ্ধার অভিযানে যায়। এ সময় র‌্যাব এর উপস্থিতি টের পাওয়া মাত্র-ই অস্ত্রধারী মাদক ব্যবসায়ীরা র‌্যাব সদস্যদের উপর এলোপাথাড়ি গুলিবর্ষণ আরম্ভ করলে আত্মরক্ষার্থে র‌্যাব সদস্যগণ পাল্টা গুলি চালায়। প্রায় ১০-১৫ মিনিট গুলি বিনিময়ের পর স্থানীয় জনগণের সহযোগিতায় ঘটনাস্থল তল্লাশী করে একজন অজ্ঞাতনামা অস্ত্রধারী মাদক ব্যবসায়ীকে আহত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায় এবং গুলি বিনিময়ের সময় ২জন র‌্যাব সদস্য আহত হয়।

আহত ব্যক্তি এবং র‌্যাব সদস্যদ্বয়কে দ্রুত পুঠিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আহত মাদক ব্যবসায়ীকে মৃত ঘোষণা করেন।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয়, ঘটনাস্থল থেকে ৭.৬৫ মিঃ মিঃ ১টি বিদেশী পিস্তল, ১টি ওয়ান শুটারগান, ২ রাউন্ড তাজা গুলি, ১টি ম্যাগজিন, ১টি গুলির খালি খোসা ও ৪৮০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।

পরবর্তীতে জানা যায় যে, নাম-পরিচয়। নিহত ওই মাদক ব্যবসায়ী পুঠিয়া উপজেলার হলহলিয়া গ্রামের মোঃ আবুল কাশেমের ছেলে মোঃ ইখলাস আলী (২৮)।

র‌্যাব আরো জানায়, এছাড়াও পুঠিয়া উপজেলার রামজীবনপুর গ্রামের মোঃ সেলিম এর ছোট মেয়ে মোছাঃ ইভা আক্তার (১২) কে জোরপূর্বক ধর্ষণ এবং ঘটনা প্রকাশে বাধা-নিষেধ করে ভয়-ভীতি প্রদর্শণ করে আত্মহত্যার প্ররোচনা এবং সহায়তা করা অপরাধের মোঃ ইখলাস আলী প্রধান আসামী। পুঠিয়া থানার মামলা নং-৬, তারিখ ৯/৪/২০২০ ধারা- ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন (সংশোধনী-২০০৩) ৯(১)/৯(ক)/৩০।)।
এবিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

 

Copyright © All rights reserved © 2019 Kansatnews24.com
Theme Developed BY Sobuj Ali
error: Content is protected !!